ঘড়িতে দশটা দশ বাজিয়ে কেন রাখা হয়?

লক্ষ্য করলে দেখবেন সবকটি ঘড়িতেই বেজে থাকে ১০ টা ১০। এর ব্যতিক্রম খুবই কম। কিন্তু, এর রহস্য কি? কেন হঠাৎ এমনই একটা বিশেষ সময়ে থেমে থাকে ঘড়ির কাঁটা? এই কারণ নিয়ে মতভেদ রয়েছে। কারণগুলো এইরকমঃ

ঘড়ি সংস্থার কর্ণধারদের কথায়, এই পজিসনে কাঁটা দুটি থাকলে এতে কোম্পানির লোগো দেখতে সমস্যা হয় না। এছাড়া সিমেট্রি থাকে কাঁটা দুটোর মাঝে। তবে ৩:১৫ বা ৪:২০ তে থাকলেও একই সুবিধা পাওয়া যায়। কিন্তু ১০ টা ১০-এ এর ঘড়ির কাঁটা দুটো দেখতে উপরে উঠানো হাতের মত লাগে, যা অনেক বেশি সুন্দর দেখতে লাগে।

কথিত আছে একটি বিশেষ ঘটনা এই সময়টাকে স্মরণীয় করে রেখেছে। শুক্রবার, ১৪ ই এপ্রিল, ১৮৬৫। ছুটির দিন। ক্রুশবিদ্ধ যিশু খ্রিস্টের পুনরুত্থানের দিন। ক্যালেন্ডারের ভাষায়’ গুড ফ্রাইডে ‘। ঘড়িতে তখন রাত দশটা বেজে দশ মিনিট। ওয়াশিংটন ডি.সি ‘ র ফোর্ড থিয়েটার বক্সে বসে নাটক দেখছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ষোড়শ প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিংকন! তিনি ও তাঁর স্ত্রী দু ‘জনেই সেদিন নাটক দেখতে এসেছিলেন। নাটকের নাম ‘আওয়ার আমেরিকান কাজিনস ‘!

অভিনয় চলার সময়েই আচমকা বক্সে ঢুকে পড়লেন এক অভিনেতা। তাঁর নাম জন উইলকিস বুথ। বুথের হাতে একটা পিস্তল, সেই পিস্তলের নলটা প্রেসিডেন্টের ঘাড়ে ঠেকিয়ে তিনি ট্রিগারে চাপ দিলেন। রক্তে ভেসে যাচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সারা দেহ, নিহত হলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিঙ্কন। তাই তাঁর স্মৃতির উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা জানাতে পৃথিবীর সব বিজ্ঞাপনের ঘড়ির কাটা এখন ১০ টা বেজে ১০ মিনিটে থেমে থাকে বলে মনে করা হয়।

ঘড়ির কাঁটা ১০টা দশে থাকলে ঘড়িটা দেখতে বেশ সুন্দর লাগে। দুটো কাঁটা দুদিকে সমানভাবে হাত মেলে আছে। মনে হবে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছে। একটা প্রতিসাম্য অবস্থা, পরিপাটি ছিমছাম লাগে দেখতে, দৃষ্টিনন্দন। প্রতিটি মানুষ প্রতিসাম্য আর পরিপাট্য পছন্দ করে। তাই ঘড়ির সব বিজ্ঞাপনদাতা এই কায়দাটা অনুসরণ করে আসছে।

১০টা ১০-এর মধ্যে অনেকে একটা হাসির ছবি খুঁজে পান। মনে হয় ঘড়িটা হাসছে। বেশ একটা খুশী খুশী ভাব দেখা যায়, যাতে ক্রেতা আকর্ষিত হন।

বেশীরভাগ ঘড়িতেই কোম্পানির লোগো মাঝ বরাবর রাখে, অর্থাৎ হয় ১২টার ঠিক নীচে বা ঘড়ির ঠিক মধ্যেখানে বা নীচের ছ’টার ঠিক ওপরে। তাই কাঁটা দুটো ১০টা ১০-এ থাকলে স্পষ্টভাবে কোম্পানির লোগোটা দেখা যায়।

অনেক কোম্পানি ঘড়ির কাঁটা অন্যভাবে রেখে পরীক্ষা করেছিল। কিন্তু দেখা গেল, বেশীরভাগ ক্রেতাই ১০টা ১০-এ থাকা ঘড়ির দিকেই হাত বাড়ায়। তারপর আর কেউ কাঁটা বদলানোর রিস্ক নেয়নি।

%d bloggers like this: