ড্রপশিপিং ব্যবসা আসলে কি ? কিভাবে ড্রপশিপিং ব্যবসা শুরু করবেন ?

ড্রপশিপিং ব্যবসা

ড্রপশিপিং ব্যবসা

বর্তমানে অনলাইনে অর্থ উপার্জনের অন্যতম জনপ্রিয় উপায় হচ্ছে ড্রপশিপিং ব্যবসা । গুগল ট্রেন্ডস অনুসারে বর্তমানে ড্রপশিপিং ব্যবসার জনপ্রিয়তা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। অনলাইনে ড্রপশিপিং ব্যবসা করে একজন উদ্যোক্তা  খুব সহজেই প্রতি মাসে ৫০-১০০ ডলার উপার্জন করেছেন । ড্রপশিপিং ব্যবসা করে অনেকেই সাফল্য পেয়েছেন। অনলাইনে খুজলে প্রচুর পরিমাণে প্রমাণ পাবেন যে ড্রপশিপিং ব্যবসা করে অনলাইনে প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

ড্রপশিপিং ব্যবসা আসলে কি ?

ড্রপশিপিং ব্যবসা হলো একটি ভিন্ন ধরনের ব্যবসায়িক মডেল । এই ব্যবসায় আপনি যখন কোন গ্রাহকের কাছে পণ্য বিক্রি করবেন, তখন পণ্য উৎপাদনকারী বা পণ্য সরবরাহকারী আপনার পক্ষ থেকে আপনার গ্রাহকদের কাছে প্যাকেজিং করে বিমানে বা জাহাযে পাঠিয়ে দিবে।

অনলাইনে অনেক ওয়েবসাইট টুল রয়েছে। যে টুল দিয়ে আপনি খুব সহজেই আপনার ওয়েবসাইটে পণ্য যোগ করতে পারবেন। চায়নার আলিবাবা থেকে অনেকেই এই ড্রপশিপিং ব্যবসা করে থাকেন। প্রথমে একটা স্বতন্ত্র ওয়েবসাইট খুলে সেখানে আলিবাবার ওয়েবসাইট থেকে পণ্য অ্যাড করার ওয়েবসাইট টুল অ্যাড করা হয়। আলিবাবার ওয়েবসাইটে মিলিয়ন মিলিয়ন পণ্য রয়েছে। এসব পণ্য কাস্টমার ওয়েবসাইটে যখন ভিজিট করে তখন দেখে পণ্যের দাম এবং শিপিং চার্জ। অর্ডার করার পর সাপ্লায়ার পণ্য পাঠালে সে পণ্য বায়ার কে সরবরাহ করা হয়।

কিভাবে ড্রপশিপিং ব্যবসা শুরু করবেন ?

Shopify দিয়ে একটি ড্রপশিপিং স্টোর তৈরি করা যাবে খুব সহজেই। ধরুন আপনি আলিএক্সপ্রেস থেকে ড্রপশিপিং ব্যবসা শুরু করতে চান। আলিএক্সপ্রেসে আছে মিলিয়ন পণ্য। আপনি Shopify দিয়ে একটি ড্রপশিপিং স্টোর তৈরি করে সেখানে আলিএক্সপ্রেসের মিলিয়ন পণ্য অ্যাড করে দিলেন। এবার একটি পেমেন্ট গেটওয়ে লাগিয়ে দিলেন যাতে করে কাস্টমার পেমেন্ট করতে পারে। কাস্টমার অর্ডার করলে আপনি আলিএক্সপ্রেসে অর্ডার করবেন যাতে তারা সেই পণ্যটি আপনার সপের ঠিকানা দিয়ে বায়ারের কাছে পাঠিয়ে দেয়।

 

কিভাবে ড্রপশিপিং ব্যবসার কাস্টমার সংগ্রহ করতে হয়?

ড্রপশিপিং ব্যবসার কাস্টমার সংগ্রহ করা একটু কঠিন।কারন আপনি একটা ওয়েবসাইট বানিয়েই সেখানে প্রচুর কাস্টমার পাওয়া খুব কঠিন।  ড্রপশিপিং ব্যবসার কাস্টমার সংগ্রহ  করতে আপনি ব্যবহার করতে পারেন ফেসবুক বিজ্ঞাপন, গুগল বিজ্ঞাপন, ইন্সটাগ্রাম বিজ্ঞাপন এবং লোকালি অফলাইনে বিজ্ঞাপন।

কিভাবে ফেসবুক থেকে ড্রপশিপিং ব্যবসার কাস্টমার সংগ্রহ করবেন ?

ফেসবুক থেকে ড্রপশিপিং ব্যবসার কাস্টমার সংগ্রহ করা খুব সহজ কাজ। প্রথমে আপনার একটা ভালো বাজেট করতে হবে। যেমন আপনি একটা পণ্য বিক্রি করতে চান যার আর্থিক মূল্য ৫০ ডলার। এবার আপনাকে চিন্তা করতে হবে আপনি এই ৫০ ডলার পণ্য বিক্রি করে কত টাকা লাভ করতে চান। আপনি যদি ১০ ডলার লাভ করেন তবে এই পণ্যের জন্যে ৫ ডলার অনায়সে খরচ করতে পারবেন। আপনার টার্গেট থাকবে ৫ ডলার ফেসবুকে খরচ করে আপনি আয় করবেন ৫ ডলার। তাহলে আপনার যে টাকা ইনভেস্ট করলেন সে টাকা চলে আসবে। কিন্তু আপনার ওয়েবসাইট গুগলে রাঙ্কিং চলে আসবে। যেটা আপনার ওয়েবসাইটের জন্য অনেক ভালো হবে। এখন যদি আপনি চান আপনি প্রতি মাসে ঐ পণ্য ১০০ টা বিক্রি করবেন। তাহলে আপনার বাজেট হবে ৫০০ ডলার। এটা হচ্ছে ধারনা করা বাজেট। কিন্তু ৫০০ ডলার আপনি ফেসবুকে খরচ করলে ১০০ পণ্যের উপরে সেল করতে পারবেন খুব সহজেই।

কিভাবে গুগল বিজ্ঞাপন থেকে ড্রপশিপিং ব্যবসার কাস্টমার সংগ্রহ করবেন ?

গুগল বিজ্ঞাপন থেকে ড্রপশিপিং ব্যবসার কাস্টমার সংগ্রহ করাটা ফেসবুক থেকে কঠিন হবে। আপনি এখানে কয়েক ভাবে কাস্টমার আকৃষ্ট করতে পারবেন। যেমন, গুগলের সার্চ ইঞ্জিন থেকে। আবার ডিসপ্লে অ্যাড থেকে। সাধারণত মানুষ পণ্য ক্রয় করতে প্রথমেই গুগলে সার্চ করে থাকে। সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইট গুলিতে মানুষ আসে বিনোদন নিতে বা যোগাযোগ রক্ষা করতে। এখানে পণ্য বিক্রি করাটা একটু কঠিন। তবে সার্চ ইঞ্জিন গুলিতে মানুষ আসে পণ্য খুজতে। কিন্তু এখানে প্রতিযোগিতা অনেক বেশী। এখান থেকে একটা কাস্টমার পেতে আপনাকে অনেক টাকা খরচ করতে হবে। এখানে আপনি নির্ধারণ করে দিতে পারবেন আপনার টাকা কিভাবে খরচ হবে একজন কাস্টমার তৈরির ক্ষেত্রে।

যেমন আপনি একটা বই বিক্রি করেন। এটার বাজার মূল্য ১০ ডলার। এখন এটার কি ওয়ার্ড গুগল অ্যাডে দিবেন। আপনি যত বেশী বিড করতে পারবেন তত বেশী আপনার ওয়েবসাইট কাস্টমারের কাছে পৌঁছানোর সুযোগ আছে। আপনি যদি প্রতি ক্লিকের জন্য ৫০ সেন্ট বিড করেন তবে আপনার অ্যাড সবার আগে থাকার সুযোগ থাকে প্রচুর।

আবার আপনি যখন গুগলে ডিসপ্লে অ্যাড দিবেন তখন গুগল আপনার অ্যাড টা আপনার পণ্য রিলেটেড ওয়েবসাইটে দিয়ে দিবে। ফলে একজন কাস্টমার যখন অন্য ওয়েবসাইটে দেখবে আপনার পণ্য অনেক কমে সেল হচ্ছে তখন তারা আপনার ওয়েবসাইটে আসবে। তবে ডিসপ্লে অ্যাড রান করতে অনেক বাজেট দরকার হবে।

কিভাবে লোকালি অফলাইনে বিজ্ঞাপন থেকে ড্রপশিপিং ব্যবসার কাস্টমার সংগ্রহ করবেন ?

অফলাইনে বিজ্ঞাপন থেকে ড্রপশিপিং ব্যবসার কাস্টমার সংগ্রহ করাটা অনেক সহজ অনলাইন মাধ্যম থেকে। আপনি চাইলে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য কিছু লিফলেট, হ্যান্ড বিল, পোস্টার তৈরি করে জনাকীর্ণ এলাকায় লাগিয়ে দিতে পারবেন। রাস্তায় বিলি করতে পারবেন। এটার জন্য আপনার তেমন বেশী খরচ না হলেও এটা বেশ ফলদায়ক। যখন একটা ওয়েবসাইট মানুষ অনলাইন আর অফলাইনে দেখে তখন তারা এটাকে অনেক বিশ্বাসযোগ্য মনে করে থাকে।

কত টাকা ইনভেস্ট করে ড্রপশিপিং ব্যবসা শুরু করা যাবে ?

একটা ড্রপশিপিং ব্যবসা শুরু করতে আপনাকে অনেক টাকা ইনভেস্ট করতে হবেনা। ডোমেইন আর হস্টিং, ডিজাইন মিলে ২০০০ ডলার হলেই আপনি এই ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। এর পর আপনার বিজ্ঞাপনে খরচ অনুযায়ী আপনার আয় আসা শুরু হবে। বিজ্ঞাপনে আপনি যত বেশী খরচ করবেন আপনার ওয়েবসাইট খুব দ্রুত সেল করা শুরু করবে।